May 20, 2024 | Monday | 4:34 AM

কম খরচে দার্জিলিং: স্বপ্নের পাহাড়ে বাজেট ভ্রমণের টিপস!

0

*দার্জিলিং**, পূর্ব হিমালয়ের রানী, তার মনোরম দৃশ্য, মনোরম আবহাওয়া এবং চা-বাগানের জন্য বিখ্যাত। তবে, অনেকেই ভাবেন, দার্জিলিং ভ্রমণ মানে বেশিরভাগ টাকা খরচ করা। আসলে, সঠিক পরিকল্পনা ও কিছু টিপস মেনে চললে, দার্জিলিং ভ্রমণ বেশ কম খরচেও উপভোগ করা সম্ভব।

**কখন যাবেন:**

* **অফ-সিজন:**  ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি (শীতকাল) ছাড়া যেকোনো সময় দার্জিলিং ভ্রমণের জন্য উপযুক্ত।

* **মৌসুম:**  মার্চ-মে (বসন্ত) এবং সেপ্টেম্বর-নভেম্বর (শরৎকাল) আবহাওয়া মনোরম থাকে এবং ভিড় কম থাকে।

**যাতায়াত:**

* **ট্রেন:**  নিউ জলপাইগুড়ি থেকে টয় ট্রেনে করে দার্জিলিং যাওয়া একটি অভূতপূর্ব অভিজ্ঞতা। স্লিপার ক্লাসের টিকিট বেশ কম খরচে পাওয়া যায়।

* **বাস:**  কলকাতা, শিলিগুড়ি ও অন্যান্য শহর থেকে দার্জিলিং-এ বাস সার্ভিস রয়েছে। বাস ভ্রমণ ট্রেনের চেয়ে কম খরচে।

**থাকা:**

* **হোমস্টে:**  হোটেলের চেয়ে হোমস্টেতে থাকা অনেক কম খরচে হয়। এতে স্থানীয় সংস্কৃতি ও খাবারের সাথে পরিচয় হওয়ার সুযোগও পাওয়া যায়।

* **ডর্মিটরি:**  যদি একা বা বন্ধুদের সাথে ভ্রমণ করেন, তাহলে ডর্মিটরিতে থাকতে পারেন। এটি সবচেয়ে কম খরচে থাকার বিকল্প।

**খাবার:**

* **স্থানীয় খাবার:**  রাস্তার ধারের খাবার স্টল ও ছোটো দোকান থেকে স্থানীয় খাবার খেলে অনেক টাকা বাঁচানো যায়।

* **স্ব-রান্না:**  কিছু হোমস্টেতে রান্নার ব্যবস্থা থাকে। বাজার থেকে কিনে নিজেরা রান্না করলে খরচ অনেক কম হবে।

**ঘোরাঘুরি:**

* **পাহাড়ে হাঁটা:**  দার্জিলিং ঘোরার জন্য সবচেয়ে ভালো উপায় হল পাহাড়ে হেঁটে বেড়ানো। এতে টাকাও খরচ হবে না, আবার শরীরও ভালো থাকবে।

* **স্থানীয় যানবাহন:**  দার্জিলিং ঘোরার জন্য জিপ, ট্যাক্সি, ও রিকশা ব্যবহার করা যায়। তবে, দর কষাকষি করে ভাড়া ঠিক করে নেওয়া উচিত

Advertise

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *